পুরাতন দলিল বের করার উপায় মোবাইল দিয়ে

পুরাতন দলিল বের করার জন্য মোবাইলের যে কোন ব্রাউজার থেকে https://eporcha.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। এরপরে জমির খতিয়ানে প্রবেশ করে নিচের দিক থেকে আপনার বিভাগ নির্বাচন করতে হবে। পরবর্তীতে যে জেলায় অবস্থান করেন সেটি নির্বাচন করুন। উপজেলা নির্বাচন হয়ে গেলে পরবর্তীতে মৌজা নির্বাচন করুন। দাদা অথবা পিতার নামে কতটুকু জমি আছে তা জানতে নির্বাচন করুন। এরপরে ডাবল ক্লিক করলেই আপনার বরাদ্দকৃত জমির অংশ দেখতে পাবেন।

বর্তমান সময়ে পুরাতন জমির দলিল একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একটি জমির সবথেকে মূল্যবান জিনিস হল তার দলিল। পরবর্তী মালিকানাধীন এর তথ্য সংরক্ষণের জন্য অথবা সম্পত্তির অবস্থান সম্পর্কে জানার জন্য পুরাতন দলিলগুলো অত্যন্ত কাজের। প্রধানত বাণিজ্যিক অথবা আইনগত এবং ঐতিহাসিক কারণে প্রয়োজনীয় দলিলগুলো কাজে লাগতে পারে। পুরাতন দলিলের মাধ্যমে জমির মালিকানা শনাক্ত করা হয়ে থাকে এবং পূর্বে জমির মালিক কে ছিল এগুলো জানা যায় এই কারণেই মূলত বিভিন্ন সমস্যা থেকে পুরাতন দলিলের মাধ্যমে মুক্তি পাওয়া যায়।

পুরাতন জমির দলিল ডাউনলোড করুন

পুরাতন দলিল বের করুনবিস্তারিত
প্রথম ধাপ: প্রবেশ করুনhttps://wbregistration.gov.in/
দ্বিতীয় ধাপ: প্রবেশ করুনE- SERVICE
দ্বিতীয় ধাপ: ক্লিক করুনSearching of deep
চতুর্থ ধাপ: ক্লিক করুনBd seller/Buyer/Party Name
পঞ্চম ধাপ:লাস্ট নাম, সাল, জেলা দেখতে পাবেন
সপ্তম ধাপ:জমির তথ্যর সাথে সব মিল আছে কিনা দেখুন
অষ্টম ধাপ:ভালোমতো পিতা এবং দাদার নাম দেখুন
নবম ধাপজমি কবে নাগাদ কিনেছে তা দেখতে পাবেন
দশম ধাপজমি রেজিস্ট্রেশন নাম্বার কত দেখুন
শেষ ধাপপুরাতন দলিল ডাউনলোড করুন

এইভাবে খুব সহজেই আপনি আপনার মোবাইল দিয়ে পুরাতন জমির দলিল ডাউনলোড করতে পারবেন এবং জমির বিস্তারিত তথ্য গুলো দেখতে পারবেন। এক্ষেত্রে যদি আপনার মোবাইল দিয়ে দেখতে সমস্যা হয় সে ক্ষেত্রে আপনি যে কোন কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে এভাবে অনলাইনের মাধ্যমে আপনারা পুরাতন জমির দলিল বের করতে পারবেন।

আরো পড়ুন: এক ক্লিকেই মুভি সিনেমা ডাউনলোড করুন খুব সহজে

পুরাতন দলিল বের করার পরে সেটা প্রিন্ট আকারে আপনি সংরক্ষণ করে রাখতে পারবেন এক্ষেত্রে আমাদের দেওয়া লিঙ্ক থেকে খুব সহজেই আপনি পুরাতন জমির দলিল মোবাইল দিয়ে অথবা কম্পিউটারের মাধ্যমে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

কয়েক মাস যাবত অথবা দীর্ঘদিন যাবত এরকমভাবে আপনাকে আর ভূমি অফিসে গিয়ে জমির দলিলের সমস্যার কথা জানিয়ে আপনাকে ঘোরাঘুরি করা লাগবে না এক্ষেত্রে সরাসরি এখন থেকে আপনি আপনার মোবাইলের মাধ্যমে খুব সহজে পুরাতন জমির দলিল এবং পুরাতন জমির তথ্যগুলো খুব সহজেই দেখে নিতে পারবেন।

আমাদের গ্রাম এলাকার মানুষরা অথবা অনেকেই আছে যারা কিনা পুরাতন জমির দলিল পাওয়ার জন্য বছরের পর বছর অথবা মাসের পর মাস ভূমি অফিসে গিয়ে তারা যোগাযোগ করতে থাকে। তারপরেও কিন্তু অনেকেই খুব তাড়াতাড়ি কিন্তু পুরাতন জমির দলিল হাতে পায় না তাই আপনি যদি খুব সহজেই অনলাইন থেকে পুরাতন জমির দলিল খুঁজে পেতে চান তাহলে https://eporcha.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে খুব সহজে আপনার পুরাতন জমির দলিল তথ্য দেখতে পারবেন এবং তা ডাউনলোড করতে পারবেন।

নিজের জমি আছে কিনা এটা জানার জন্য অথবা জমি বিক্রির জন্য অথবা জমি দখলের জন্য পুরাতন দলিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই পুরাতন দলিল সংরক্ষণ করা অত্যন্ত জরুরি একটি বিষয় এক্ষেত্রে যে কোন মুহূর্তে বা যে কোন সময় পুরাতন দলিল লাগতে পারে তাই অবশ্যই এই দলিলটি আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে হলেও সেটা ডাউনলোড করে রাখতে হবে এক্ষেত্রে পরবর্তীতে যে কোন সময় এই জমির জন্য কাজে লাগবে।

আপনি যদি ভূমি অফিসে গিয়ে পুরাতন দলিল উত্তোলন করার চেষ্টা করেন এক্ষেত্রে ১ থেকে ৫ মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে এক্ষেত্রে এক বছর পর্যন্ত সময় লেগে যায় পুরাতন দলিল বের করার জন্য। তবে এখন থেকে আর এই ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হবে না এখন থেকে খুব সহজেই সরাসরি আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে পুরাতন দলিল বের করে তা ডাউনলোড করে রাখুন।

শুধুমাত্র সামান্য খরচ দিয়ে আপনি যে কোন কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে পুরাতন দলিলের তথ্য জানতে পারবেন এবং তা ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করে রাখতে পারবেন। এক্ষেত্রে যদি আপনি ভূমি অফিসের মাধ্যমে গিয়ে করতে পারেন তবে ক্ষেত্রে কিন্তু একটি সময় সাপেক্ষ ব্যাপার তবে সবথেকে সহজ উপায় এবং খুব তাড়াতাড়ি পুরাতন দলিল পাওয়ার উপায় হল অনলাইনে।

জমির দলিল না থাকলে কি করবেন?

জমির দলিল না থাকলে https://eporcha.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে নাম ঠিকানা এবং মৌজা নির্বাচন করে আপনি আপনার জমির দলিল সংক্রান্ত বিস্তারিত এবং জমি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য গুলো জানতে পারবেন।

দলিলের কপি পাওয়ার জন্য আবেদন

রেসিস্টেশন বিধিমালা অনুযায়ী ২০১৪ এবং ১০৮ ধারা রেজিস্টারের অনুসন্ধানের নথির আবেদনের মাধ্যমে এ বিষয়ে নিয়ম লিখা আছে। জমির দলিল কপি পাওয়ার জন্য আবেদন জমা দেওয়ার আগে অনুসন্ধানের একটি প্রতিবেদন ফরম পূরণ করা লাগবে এরপর আপনাকে ফোন নাম্বারের ৩৭ অনুলিপির জন্য আবেদন করুন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *